ঢাকা      মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭
IMG-LOGO
শিরোনাম

টাঙ্গাইলে শীতের আগাম সবজির বাজারে আগুন!

IMG
17 October 2020, 4:40 PM

টাঙ্গাইল, বাংলাদেশ গ্লোবাল: টাঙ্গাইলের নাগরপুরে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে শীতের আগাম সবজি আসা শুরু করলেও বাজারে দাম চড়া। ফলে বিপাকে পড়েছে সাধারণ মানুষ।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, নাগরপুর শহরের কাঁচা বাজার, গয়হাটা বাজার, সহবতপুর বাজার, ভাড়রা বাজার, সলিমাবাদ বাজার, ধুবড়িয়া-ভাদ্রা বাজার, দপ্তিয়র বাজার, মামুদনগর, মোকনা-পাকুটিয়া বাজারসহ বিভিন্ন বাজারে সরকারের বেঁধে দেওয়া ৩০ টাকা কেজির আলু ৫০-৫৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। শিম ১০০, পেঁয়াজ ৮৫, কাঁচা মরিচ ২৪০, বেগুন ৭০, করলা ১০০, পটল ৬০, শশা ৫০, ঢেঁড়স ৬০, বরবটি ৮০, বগুড়ার মূলা ৫০, পেঁপে ৩০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়াও কচুর লতা প্রতি আটি ৫০ টাকা, মিষ্টি লাউ ৩৫ টাকা কেজি, ফুলকপি ৮০, বাঁধাকপি ৬০, চিচিংগা ৬০, ধন্দুল ৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া লাল শাক ৬০ টাকা কেজি, পুঁইশাক প্রতি কেজি ৪০ টাকা, কলমি শাক(চাষকৃত) ৪০-৩৫ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

তবে বাজারভেদে এসব সবজি ৫-৮ টাকা কমবেশি দামে বিক্রি করা হচ্ছে। তবে এক বাজারের তুলনায় অন্য বাজারে সবজির দামে পার্থক্য রয়েছে।

বিভিন্ন বাজারের খুচরা সবজি বিক্রেতাদের কাছে এসব পণ্যের উর্ধ্বগতি সম্পর্কে জানতে চাইলে তারা বলেন, জেলা শহরের পাইকারী বাজার থেকে কাঁচামাল কিনে এনে
অমরা এসব বাজারে বিক্রি করি। পাইকারী বাজারে দাম বেশি থাকায় আমরা বিক্রি করছি। পাইকারী কেনা দামের চেয়ে ৫ থেকে ১০ টাকা লাভে এসব সবজি বিক্রি করতে হচ্ছে।

নাগরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সিফাত-ই-জাহান বলেন, উপজেলা প্রশাসন নিয়মিত বাজার মনিটরিং করছে ও মোবাইল কোর্ট পরিচালনা অব্যাহত রয়েছে। অসাধু ব্যবসায়ীদের আমরা সর্তক করছি। জনস্বার্থে আরো কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা যেতে পারে।

সাম্প্রতিক খবর জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

IMG

এ বিভাগের আরো খবর

সর্বশেষ খবর

আরো পড়ুন