ঢাকা      বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
IMG-LOGO
শিরোনাম

“বাংলাদেশ এয়ার শো-২০২২”এর ওয়েব পেইজ উদ্বোধন

IMG
13 November 2020, 3:25 AM

ঢাকা, বাংলাদেশ গ্লোবাল: স্বাধীনতার সূবর্ণ জয়ন্তী উদযাপনের অংশ হিসেবে “বাংলাদেশ এয়ার শো-২০২২” নামের একটি আন্তর্জাতিক এয়ার শো‘র আয়োজন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। এ লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার তেজগাঁওয়ের বিএএফ ফ্যালকন হলে ‘বাংলাদেশ এয়ার শো-২০২২’ এর ওয়েব পেইজ উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার চীফ মার্শাল মাসিহুজ্জামান সেরনিয়াবাত, বিবিপি, ওএসপি, এনডিইউ, পিএসসি।

এর আগে প্রধান অতিথি অনুষ্ঠানস্থলে এসে পৌছালে সহকারী বিমান বাহিনী প্রধান (পরিকল্পনা) মোঃ শফিকুল আলম, বিবিপি, ওএসপি, বিএসপি, এনডিসি, এফএডব্লিউসি, পিএসসি তাকে স্বাগত জানান। উল্লেখ্য যে, এই অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর তত্ত্বাবধানে ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারী মাসে এই এয়ার শো আয়োজনের প্রাথমিক তথ্য-সম্বলিত ওয়েব পেইজ বিশ্বের কাছে উন্মুক্ত করা হয়েছে।


অনুষ্ঠানে বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার চীফ মার্শাল মাসিহুজ্জামান সেরনিয়াবাত বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় জন্ম নেয়া বাংলাদেশ বিমান বাহিনী স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষ্যে যে এয়ার শো এর আয়োজন করতে যাচ্ছে তার মাধ্যমে বাংলাদেশ বিশ্বের দরবারে নতুন ভাবে পরিচিতি লাভ করবে।

এয়ার শো আয়োজন একটি দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন, পর্যটন শিল্পের প্রসার, নতুন কর্মসংস্থানের দ্বার উন্মোচনসহ বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের পথকে বেগবান করতে যথেষ্ট ভূমিকা রাখে। এই লক্ষ্য কে সামনে রেখে বিশ্বের দীর্ঘতম ও নিরবিচ্ছিন্ন সমুদ্র সৈকতের শহর কক্সবাজারকে এই আয়োজনের স্থান হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে। এই আয়োজনের মাধ্যমে বাংলাদেশ এবং বাংলাদেশের সার্বিক প্রবৃদ্ধির ধারা কে বিশ্বের দরবারে উপস্থাপন করা সম্ভব হবে। জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে বাংলাদেশের মর্যাদা উন্নয়নের লক্ষ্য বাস্তবায়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর সুচিন্তিত দিকনির্দেশনায় এবং বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর সার্বিক তত্বাবধানে ‘ইধহমষধফবংয অরৎ ঝযড়-ি২০২২’এর আয়োজন হবে।

তিনি আরো বলেন, এই এয়ার শো এর মাধ্যমে বাংলাদেশে এভিয়েশন শিল্পের অমিত সম্ভাবনার দ্বার উন্মোক্ত হবে এবং সারাবিশ্বের কাছে কক্সবাজার পর্যটন শিল্পের পরিচিতিসহ প্রস্তাবিত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরকে পূর্ব-পশ্চিমের সংযোগ কেন্দ্র হিসেবে প্রত্যাশা করা হবে। সর্বোপরি সার্বিকভাবে বাংলাদেশের উন্নতির চিত্র উপস্থাপনের পাশাপাশি বিনিয়োগ, কর্মসংস্থান এবং বৈদেশিক মুদ্রা আয়সহ বাংলাদেশের সামগ্রিক প্রবৃদ্ধিতে এই এয়ার শো সুস্পষ্ট প্রভাব ফেলবে বলে আশা করা যায়।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বিমান সদরের প্রিন্সিপাল ষ্টাফ অফিসারগণ, চেয়ারম্যান বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রতিনিধি, প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা মহাপরিদপ্তরের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

সাম্প্রতিক খবর জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

IMG

এ বিভাগের আরো খবর

সর্বশেষ খবর

আরো পড়ুন