ঢাকা      রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ৫ বৈশাখ ১৪২৮
IMG-LOGO
শিরোনাম

মিরকাদিমের মেয়রের বাসায় বিস্ফোরণ নিয়ে রহস্য (ভিডিও)

IMG
07 April 2021, 12:42 PM

সাইফুল ইসলাম শামীম, মুন্সিগঞ্জ, বাংলাদেশ গ্লোবাল: মুন্সিগঞ্জের মিরকাদিম পৌরসভার মেয়র আব্দুস সালামের বাসায় মঙ্গলবার (০৬ এপ্রিল) রাতে রহস্যজনক বিস্ফোরণে দগ্ধ হয়েছেন ৪ জন কাউন্সিলরসহ অন্তত ১৩ জন। রহস্যজনক এই বিস্ফোরণের কারণ নিয়ে নানা মহলে সৃষ্টি হয়েছে গুঞ্জন।

এ ঘটনায় আহত ১৩ জনের মধ্যে ১২ জনকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ইনস্টিটিউটে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। বাকি একজনকে মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হাসপাতাল সূত্র থেকে জানা গেছে, বার্ন ইনস্টিটিউটে ভর্তি ১২ জনের মধ্যে পৌর মেয়র আব্দুস সালামের স্ত্রী কানুন বেগমের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাঁর শরীরের প্রায় ৬০ ভাগ পুড়ে গেছে। বাকিদের শরীরের ৩ থেকে ২০ শতাংশ পুড়ে গেছে।

রহস্যজনক এই বিস্ফোরণের পর থেকে বিস্ফোরণের কারণ ও রাতে মেয়রের বাসভবনে আয়োজিত সভা নিয়ে নানা মহলে গুঞ্জন সৃষ্টি হয়েছে। বিস্ফোরণের তীব্রতা দেখে এটিকে বোমা অথবা গ্যাস সিলেন্ডার বিস্ফোরণ বলে প্রাথমিকভাবে অনেকে ধারণা করছেন বলে জানা গেছে।

পৌর মেয়রের ছেলে রাশেদ মানিক জানান, তাদের বাসায় তারা সিলিন্ডার গ্যাস ব্যবহার করেন না। আর মঙ্গলবার দিনভর লাইনে গ্যাস ছিল না। বিষয়টি পরিকল্পিতভাবে ঘটানো হয়েছে বলে সন্দেহ করছেন তিনি।

পৌরসভার সভা রাতে কেন হবে এবং সেটা মেয়রের বাসায় কেন? এমন প্রশ্নের জবাবে প্যানেল মেয়র রহিম বাদশা বলেন, বৈঠক অনির্ধারিত ছিল। হঠাৎ করে সভার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। গুরুত্বপূর্ণ হওয়ায় তারা বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে পৌর মেয়রের বাসায় যান।

এদিকে, পৌর মেয়রের বাসার দরজায় লাগানো একটি সিসি ক্যামেরার ফুটেজ থেকে দেখা যায়, বিস্ফোরণের তীব্রতায় আশেপাশের জিনিসপত্র উড়ে গিয়ে অন্যত্র পড়ছে এবং হুড়োহুড়ি করে বাসায থেকে লোকজন বেরিয়ে যাচ্ছেন।

এদিকে, জেলা পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন জানিয়েছেন, মঙ্গলবার রাতেই বোমা নিষ্ক্রিয়কারী একটি দল এবং জেলা পুলিশের সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। প্রাথমিক পর্যবেক্ষণ শেষে তাদের মনে হয়েছে, এটা কোনো বোমার বিস্ফোরণ নয়। তবে গ্যাস লাইনের লিকেজ থেকে এ ধরনের বিস্ফোরণ হতে পারে বলে ধারণা করছেন তাঁরা।

বাংলাদেশ গ্লোবাল ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

সাম্প্রতিক খবর জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ

সর্বশেষ খবর

আরো পড়ুন