ঢাকা      বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ২ আষাঢ় ১৪২৮
IMG-LOGO
শিরোনাম

ভারত থেকে দেশে ফেরা ১৪০ জন কোয়ারেন্টাইনে

IMG
06 May 2021, 7:41 PM

সাতক্ষীরা, বাংলাদেশ গ্লোবাল: যশোরের বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারত থেকে দেশে ফেরা ১৪০ জন পাসপোর্ট যাত্রীকে সাতক্ষীরা শহরের চারটি আবাসিক হোটেলে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হচ্ছে।

বুধবার (৫ মে) সন্ধ্যায় দেশে আসা এসব যাত্রীদের মধ্যে ৫০ জনের একটি দলকে আবাসিক হোটেল উত্তরা ও বাকীদের টাইগার প্লাস এবং হোটেল আল কাশেম এ রাখা হয়েছে। তাদের প্রত্যেকেরই পাসপোর্ট সদর থানায় জমা রাখা হয়েছে। তাদের সবারই বাড়ি সাতক্ষীরাসহ দেশের বিভিন্ন জেলার বিভিন্ন স্থানে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে পৌরসভার একজন জনপ্রতিনিধি জানান, করোনায় ভারতে প্রচুর মানুষ মারা যাচ্ছে। ভারতের করোনার ভ্যারিয়েন্ট সংক্রমন বেশ শক্তিশালী। বাইরে থেকে মেহমান আসলে তাদের হোটেলগুলোতে আবাসনের ব্যবস্থা না করে তাদের যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের ৫ তলা ভবনে রাখা যেত।

ভারত থেকে আসা এসব বাংলাদেশী নাগরিকদের অভিযোগ, আবাসিক হোটেলে আনার পর তাদের হোটেল ভাড়া ও তাদের খাওয়া খরচ তাদের নিজেদের বহন করতে হচ্ছে। এরফলে অনেকেই না খেয়ে দিন পার করছেন। তবে, তাদের অধিকাংশ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে ভারতে গিয়ে ছিলেন ডাক্তার দেখাতে। সেদেশে ডাক্তার দেখানোর পর তাদের কাছে আর কোন টাকা নেই। এখন তারা না খেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। তাদের এখন কিছু হলে তাদের দায় ভার কে নেবে এ প্রশ্ন তাদের ? তাদের দাবী তাদেরকে স্ব স্ব জেলায় পাঠিয়ে সেখানে তাদের কোয়ারেন্টাইনের ব্যবস্থা করাসহ তাদের স্বজনদের কাছে খবর দেয়া হোক।

এদিকে, ভারতে মহামারি করোনার ভেরিয়েন্ট সংক্রমন বৃদ্ধি পাওয়ার সে দেশ থেকে দেশে ফিরিয়ে আনা পাসপোর্ট যাত্রীদের সাতক্ষীরার শহরের বিভিন্ন হোটেলে রাখার খবরে আতংকিত হয়ে পড়েছেন জেলার সাধারণ মানুষ। করোনায় ভারতে যে হারে মানুষ মারা যাচ্ছে এতে বাংলাদেশে তার প্রভাব পড়তে পারে বলে মনে করছেন বিশিষ্ট্য জনরা। যদিও, প্রশাসনের পক্ষ থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাদের কোয়ারেন্টাইন রাখা হয়েছে বলে দাবী করছেন।

সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল জানান, ভারত থেকে বেনাপোল কাস্টমস অফিস দিয়ে দেশে ফেরা ১৪০ জন বাংলাদেশীকে সাতক্ষীরায় অবস্থান করছেন। শহরের তিনটি আবাসিক হোটেলে তারা রয়েছে। তারা সরকারের কাছ থেকে বিশেষ পাশ নিয়ে ভারতে অবািস্থত বাংলাদেশী হাইকমিশনে তারা বন্ড দিয়ে এসেছে তারা এখানে কিভাবে থাকবেন। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যেখানে তাদের থাকার ব্যবস্থা করবেন সেখাইে তাদের ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে এবং তারা নিজ খরচে থাকবেন। তারা সেভাবেই সেখান থেকে বন্ড দিয়ে এসেছেন।

তিনি আরো জানান, স্বাস্থ্যবিধি অনুসরন করে তাদেরকে বেনাপোল থেকে সাতক্ষীরায় আনা হয়েছে। বেনাপোল ও যশোরে প্রায় এক হাজারের মত ভারত ফেরত বাংলাদেশীরা কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে। বাকীদের সাতক্ষীরাসহ আশেপাশের জেলায় পাঠানো হচ্ছে। তবে, এখানে যারা রয়েছেনে তাদের সুব্যবস্থাপনা জন্য জেলা প্রশাসন ও জেলা পুলিশ যৌথভাবে কাজ করবেন।

এছাড়া অন্যান্য আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীও সেখানে নিয়োগ করা হয়েছে। তারা যাতে বাইরে না আসতে পারে সেটি আমাদের সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিতে হবে। তারা ভিতরে থাকলে তাদের যে খাদ্য খরচটা সেটা তাদের নিজ খরচে বহন করতে হবে।


বাংলাদেশ গ্লোবাল/এমএন

বাংলাদেশ গ্লোবাল ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

সাম্প্রতিক খবর জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ

সর্বশেষ খবর

আরো পড়ুন