ঢাকা      রবিবার, ২০ জুন ২০২১, ৫ আষাঢ় ১৪২৮
IMG-LOGO
শিরোনাম

কালের সাক্ষী হয়ে দাঁড়িয়ে আছে সুখারী জমিদার বাড়ি

IMG
10 June 2021, 9:44 AM

গজনবী বিপ্লব, নেত্রকোনা, বাংলাদেশ গ্লোবাল: আগের দিনের রাজা জমিদাররা ছিল বিলাশবহুল ও সৌথিন। তারা তাদের পছন্দ জায়গাতে গরে তুলতেন বিশাল বিশাল প্রশাদ আর তাদের জমিদারি। একটি জমিদারি পরিচালনা করার মত যা কিছু প্রয়োজন সবই থাকত সেখানে। আজ আমরা আপনাদেরকে পরিচয় করিয়ে দিব মোগল আমলের এক জমিদার বাড়ির সাথে। যা ভাঠি বাংলার রাজ মহল হিসেবে খ্যাত। আমাদের দেশে এখনো অনেক জমিদার বাড়ি আছে যা কালের আবর্তে ধ্বংশ হয়ে যাচ্ছে। হারিয়ে যাচ্ছে ঐতিহ্য।

দৃষ্টিনন্দন নির্মান শৈলির কারণে ভাটি বাংলার রাজ মহল হিসেবে খ্যাত সোখারি জমিদার বাড়ি। প্রায় তিশত বছরের ঐতিয্য নিয়ে মাথা উচুঁ করে আজও কালের সাক্ষী হয়ে দাঁড়িয়ে আছে সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার সুখার রাজাপুর উত্তর ইউনিয়নের সুখারী গ্রামে।

১৬৯১ সালে মোগল শাসন আমলে মহামানিক দত্ত রায় চৌধুরী হুগলি থেকে আসাম য়াওয়ার পথে কালিদহ সাগরের স্থলভুমির প্রাকৃতিক রুপ দেখে মুগ্ধহয়ে সুখারে জায়া কিনেছিলেন। এর চার বছর পর জমিদার মোহন লাল চৌধুরী ২৫ একর জমির উপর এ বাড়ি নির্মণ করেন।

কালের বিবর্তনে জরাঝির্ণ হলেও সে সময় বেশ আকর্ষনীয় ছিল এই জমিদার বাড়ি। ছিল বেশ শক্তপুর্ত। নানান প্রকৃতিক দূর্যোগে এখনো টিকে থাকা বাড়িটিই তার প্রমাণ। অযত্নে আর আবহেলায় প্রত্নত্বের সম্ভাবনাময় স্থান এবং মোগল আমলের নিদর্শন সমুহ আজ হারিয় যেতে বসেছে। অযত্নে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে বাড়ির নান্দনিক কারকার্য।

কথিত আছে জমিদারি পরিদর্শন করতে এসেছিলেন ইংরেজ প্রশাসক মিষ্টার বেলেন্টেয়ার। তিনি টাঙ্গুয়ার হাওড়ে শিকার করকে বেরিয়ে ছিলেন, সে সময় বেলেন্টিয়ারের হাতিকে আক্রমণ করে। মুহোর্তের মধ্যেই বেলেন্টিয়ার জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। তখন সুখারের জমিদার মধুর চৌধুরী বাঘ তিনটিকে হত্যা করেছিলেন।জ্ঞান ফিরার পর বেলেন্টিয়ার তাকে নিজের রাইফেল উপহার দিয়েছিলেন। ১৯২২ ও ১৯২৩ সালে সুখারে গড়েউঠা প্রবল নানকা বিদ্রোহে জমিদারি প্রতার ভিত নাড়িয়ে দিয়েছিল। এমন অনেক ঐতিয্য আর স্মৃতি নিয় কারের সাক্ষি হয়ে দাড়িয়ে সুখারী জমিদার বাড়ি।

ঐতিয্যময় স্থাপত্তটি রক্ষায় প্রশাসন ব্যাবস্থা নিলে এক অপরুপ পর্যটন নগরিতে পরিণত হতেপারে সুখারী জমিদার বাড়ি।

বাংলাদেশ গ্লোবাল ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

সাম্প্রতিক খবর জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ

সর্বশেষ খবর

আরো পড়ুন