ঢাকা      শুক্রবার, ০৬ আগস্ট ২০২১, ২২ শ্রাবণ ১৪২৮
IMG-LOGO
শিরোনাম

সিলেটে 'তুচ্ছ কারণে' নৃশংস খুনের ঘটনা বাড়ছে

IMG
19 June 2021, 11:11 AM

সিলেট, বাংলাদেশ গ্লোবাল: সিলেটে নৃশংসভাবে হত্যার ঘটনা বেড়েই চলছে। গলাকেটে হত্যা করে লাশের টুকরো করা, শ্বাসরোধে হত্যা করে মাটিচাপা দেওয়ার ঘটনাও ঘটছে। সর্বশেষ ১৬ জুন সিলেটের গোয়াইনঘাটে দুই শিশুসহ আলেমা বেগম (৩৫) নামে এক নারীকে গলা কেটে হত্যা করা হয়। এঘটনায় নিহত নারীর বাবা বাদি হয়ে অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে একটি মামলা করেছেন।

বিশেষজ্ঞদের দাবি, করোনাকালে সামাজিক ও পারিবারিক বিভিন্ন জটিলতা ও টানাপড়েনের কারণে এধরনের নৃশংস হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটছে। আর নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা এই পরিস্থিতিকে খুবই উদ্বেগজনক বলে মন্তব্য করছেন।

গত ২৮ মে জেলার বালাগঞ্জের গহরপুর এলাকার ধীরাজ পাল নামে এক ইটভাটার ব্যবস্থাপককে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে জখম করে দুর্বৃত্তরা। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এই মামলায় ৬ আসামিকে রিমান্ড নেওয়ার পরও চাঞ্চল্যকর এই হত্যার রহস্য কি তা উদঘাটন হয়নি।

গত ৩০ এপ্রিল রহস্যজনকভাবে মারা যান সিলেটের আইনজীবী আনোয়ার হোসেন। পরকীয়া প্রেমের জেরে অতিরিক্ত ঘুমের ওষুধ খাইয়ে আনোয়ারকে হত্যার কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন তার স্ত্রী শিপা বেগম।

এদিকে, গত ৭ জুন সিলেট নগরের কাজীটুলা এলাকার যুবক রাবিদ আহমদ নাজিম (২৭) রহস্যজনকভাবে মারা যান। ভবনের নিচ থেকে তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধারের কথা জানানো হয়। দুপুরে তিনি হাসপাতালে মারা যান।

সিলেটে অনেক তুচ্ছ কারণে হত্যাকাণ্ড সংগঠিত হয় জানিয়ে সিলেট রেঞ্জ ডিআইজি’র কার্যালয়ের পুলিশ সুপার জেদান আল মুসা বলেন, দীর্ঘ দিনের অভিজ্ঞতা বলছে এ অঞ্চলে তুচ্ছ কারণে হত্যাকাণ্ড হয়। পারিবারিক কলহ, সম্পত্তি নিয়ে পারস্পরিক বিরোধ, বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের কারণে হত্যাকাণ্ডতো আছেই। আসলে আমাদের মধ্যে এখন আর আগের মত পারিবারিক, সামাজিক বন্ধন নেই। আপনজনের প্রতি আস্তা, মূল্যবোধ নেই। কেউ কাউকে সাহায্য করতে চান না।

তিনি বলেন, শুধুমাত্র আইনি ভাবে শাস্তি দিয়ে এই অপরাধমূলক কাজ থেকে মানুষকে ফেরানো যাবে না। হত্যাকাণ্ডের মত এমন নৃশংস কাজ থেকে মানুষের ধ্যান ধারনা সরিয়ে নিয়ে পারিবারিক ও সামাজিক ভাবে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে।



বাংলাদেশ গ্লোবাল/এমএন

বাংলাদেশ গ্লোবাল ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

সাম্প্রতিক খবর জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ

সর্বশেষ খবর

আরো পড়ুন