ঢাকা      শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ৮ কার্তিক ১৪২৮
IMG-LOGO
শিরোনাম

ভ্রমণপিপাসুদের ৫০ কোটি টাকা হাতিয়েছে টোয়েন্টিফোর টিকেটি

IMG
11 October 2021, 2:32 PM

ঢাকা, বাংলাদেশ গ্লোবাল: অনলাইন ট্রাভেল এজেন্সি টোয়েন্টিফোর টিকেটি ডট কমের (www.24tkt.com) বোর্ড অব ডিরেক্টরের একজন সদস্যকে রোববার (১০ অক্টোবর) গ্রেফতার করেছে সিআইডির সাইবার পুলিশ সেন্টারের একটি টিম। সম্প্রতি মো. রাকিবুল হাসান নামে প্রতিষ্ঠানটির একজন পরিচালককেও গ্রেফতার করেছে সাইবার পুলিশ। তাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাতে সিআইডি জানিয়েছে, প্লেনের টিকিট বিক্রির নামে প্রতারণা করে ভ্রমণপিপাসুদের প্রায় ৫০ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে অনলাইন ট্রাভেল এজেন্সিটি।

সোমবার (১১ অক্টোবর) দুপুরে রাজধানীর মালিবাগে সিআইডি কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান সিআইডির সাইবার টিমের অতিরিক্ত ডিআইজি কামরুল আহসান। তিনি বলেন, ২০১৯ সালের মে মাসে অনলাইন টিকিটিং এজেন্সি টোয়েন্টিফোর টিকেটি ডটকম যাত্রা গুরু করে। গ্রেফতার দুই আসামি ফেসবুক ও ওয়েবসাইটে মিথ্যা তথ্য প্রচার করে অর্থ আত্মসাৎ ও ডিজিটাল প্রতারণা করেছেন। প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, এ পর্যন্ত তারা প্রতারণার মাধ্যমে প্রায় ৫০ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে।

সিআইডি জানায়, সাধারণত এয়ারলাইন্সগুলো টিকিটের নির্ধারিত মূল্যে ৭ শতাংশ ছাড় দিয়ে থাকে। সেখানে ‘২৪টিকেটি ডটকম’ ছাড় দিত ১২ শতাংশ। এ ছাড়ের কারণে অনেক এজেন্ট তাদের কাছ থেকে টিকিট কিনে গ্রাহকদের কাছে বিক্রি করত। তাদের টিকিট নিয়ে গ্রাহক বিমানবন্দরে এসে জানতে পারেন, টিকিটটি বিক্রি হয়নি।

এদিকে রোববার বিকেলে আইডি খোলা এবং আয়ের নানা প্রলোভন দেখিয়ে গ্রাহকের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে রিং আইডির অন্যতম এজেন্ট মো. রেদোয়ান রহমানকে (২২) গ্রেফতার করেছে সিআইডি।

তার বিষয়ে অতিরিক্ত ডিআইজি কামরুল আহসান বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে সে জানায়, ২০১৮ সাল থেকে রিং আইডিতে ইউজার হিসেবে কাজ শুরু করে রেদোয়ান। গত সাত/আট মাস আগে রিং আইডিতে এজেন্ট হিসেবে নিয়োগ পায়। তখন থেকেই ছয় শতাধিক আইডি বিক্রি করে এক কোটির বেশি টাকা আত্মসাৎ করেছে বলে জানা গেছে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে জানায়, প্রতিটি সিলভার আইডি বাবদ ১২ হাজার টাকা, গোল্ড আইডি বাবদ ২২ হাজার, প্রবাসী গোল্ড আইডি বাবদ ২৫ হাজার, প্রবাসী প্লাটিনাম আইডি বাবদ ৫০ হাজার করে নিয়েছে সে। বিভিন্ন ই-কমার্স সাইটের মতো তারাও অস্বাভাবিক ডিসকাউন্টে বিভিন্ন প্রোডাক্ট বিক্রি এবং ক্রেতাদের কাছ থেকে ই-ওয়ালেটের মাধ্যমে লেনদেন পরিচালনা করে গ্রাহকদের বিভিন্নভাবে প্রতারণা করে আসছিল। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান সিআইডির এ কর্মকর্তা।

বাংলাদেশ গ্লোবাল/এমএস

সর্বশেষ খবর

আরো পড়ুন