ঢাকা      শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১
শিরোনাম

বসুন্ধরা ইসলামিক রিসার্চ সেন্টারে খতমে বুখারি সম্পন্ন

IMG
07 February 2024, 10:25 AM

ঢাকা, বাংলাদেশ গ্লোবাল: দেশের অন্যতম উচ্চতর ইসলামী গবেষণা কেন্দ্র ও দ্বিনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ইসলামিক রিসার্চ সেন্টার, বসুন্ধরায় খতমে বুখারি অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) মহতি মজলিস অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে সহিহ বুখারির শেষ হাদিসের পাঠদান ও নসিহত পেশ করেন ভারতের জমিয়তে ওলামায়ে হিন্দের সভাপতি ও দারুল উলুম দেওবন্দের মুহাদ্দিস আল্লামা আরশাদ মাদানি। তিনি উপমহাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনের অন্যতম নেতা ও যুগশ্রেষ্ঠ হাদিস বিশারদ আল্লামা হুসাইন আহমদ মাদানি (রহ.)-এর পুত্র।

অনুষ্ঠানে বিদায়ী শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, মুমিন যদি স্মরণে রাখে যে কিয়ামতের দিন আল্লাহর সামনে দাঁড়াতে হবে, তবে তার পাপের পরিমাণ অনেক কমে যাবে। আল্লাহর জিকির ও স্মরণ মুমিনকে পাপ থেকে দূর থাকতে সাহায্য করে। কিয়ামতের দিন মানুষের সব কাজের হিসাব নেওয়া হবে। মহান আল্লাহ ন্যায়ের ভিত্তিতে সবার বিচার করবেন।

সেদিন একমাত্র আল্লাহর প্রতি আস্থা ও বিশ্বাস মানুষকে রক্ষা করবে। কর্মনিষ্ঠার কারণে অনেক আমল আল্লাহর খুবই প্রিয় হবে এবং পরকালে এর অকল্পনীয় প্রতিদান দেবেন। এর মধ্যে দুনিয়ায় এমন কিছু আমল রয়েছে, যা দেখতে খুবই সামান্য হলেও এর ওজন আখিরাতের দাঁড়িপাল্লায় অনেক ভারী হবে। এ ধরনের একটি আমলের কথা আলোচ্য হাদিসে বলা হয়েছে।

হাদিসটি হলো আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুল (সা.) ইরশাদ করেছেন, দু'টি বাক্য রহমানের কাছে প্রিয়। জিহ্বার জন্য উচ্চারণ করা সহজ। দাঁড়িপাল্লায় খুবই ভারী। (তা হলো) ‘সুবহানাল্লাহি ওয়া বিহামদিহি সুবহানাল্লাহিল আজিম’। (অর্থ : আমরা আল্লাহর প্রশংসাসহ তাঁর পবিত্রতা ঘোষণা করেছি।
আমরা ঘোষণা করছি মহান আল্লাহ অতি পবিত্র)। (বুখারি, হাদিস : ৭৫৬৩)

অনুষ্ঠানে ইসলামিক রিসার্চ সেন্টার বাংলাদেশ, বসুন্ধরার মহাপরিচালক আল্লামা আরশাদ রহমানিসহ ঢাকার বিশিষ্ট আলেমরা উপস্থিত ছিলেন।

সবশেষ খবর এবং আপডেট জানার জন্য চোখ রাখুন বাংলাদেশ গ্লোবাল ডট কম-এ। ব্রেকিং নিউজ এবং দিনের আলোচিত সংবাদ জানতে লগ ইন করুন: www.bangladeshglobal.com

সর্বশেষ খবর

আরো পড়ুন